বহুমুখি চরিত্রে মোশাররফ করিম

বহুমুখি চরিত্রে মোশাররফ করিম

বিনোদন ডেস্ক
মোশাররফ করিম এতো জনপ্রিয় কেন? এমন প্রশ্ন কাউকে করলে প্রশ্নকর্তার দিকেই অনেকে অবাক চোখে তাকাবেন। হয়তো মনে মনে হাসবেন! ভাববেন, এই লোক কী দেশের বাইরে থেকে এসেছেন? এই লোক নিশ্চয় ভারতীয় টিভি সিরিয়াল দেখে থাকেন। না হলে মোশাররফ করিম কেন জনপ্রিয় এই প্রশ্ন করবেন?

গত কয়েক বছর ধরে অভিনেতা মোশাররফ করিম টেলিভিশন নাটকের সবচেয়ে জনপ্রিয় মুখ। এটা অবশ্য নতুন কোনো তথ্য নয়। তাই মোশাররফ কেনো জনপ্রিয় এই প্রশ্ন করা বোকামিই হবে। এমন কোনো চরিত্র খুঁজে পাওয়া যাবে না, যে চরিত্রে দেখা যায়নি তাকে।

চোর, পুলিশ, বোকা, চালাক, ধনী, গরিব- সব চরিত্রেই অভিনয় করেছেন মোশাররফ। তিনি বলেন, “একজন মানুষ যদি মনে করেন, তার পাশে ক্যামেরা- লাইট নেই। তিনি যেভাবে কথা বলেন, সেভাবেই যদি অভিনয়টা করেন, তবে দর্শক তাকে পছন্দ করে। একই ধরনের দু-তিনটি নাটকে কাজ করলে সবাই তার প্রশংসা করতে থাকে। রাতারাতি তিনি তারকা বনে যান।

সেই অভিনয় দেখে নির্মাতা তার নতুন গল্পের নতুন একটি চরিত্রে নিয়ে নেন সেই শিল্পীকে। তখন দেখা যায় সেই তারকা ভালো অভিনয় করতে পারছেন না। কারণ তিনি আসলে নিজে যেটা পারেন, তার বাইরে অন্য কোনো চরিত্রে অভিনয় করতে পারেন না। যে কারণে তিনি হয় একই চরিত্রে অভিনয় করেন, না হলে হারিয়ে যান।”

নতুনদের কাছে মোশাররফ করিম আইডল। কিন্তু তিনি এটা বরাবরই এড়িয়ে চলেন। তিনি বলেন, “মোশাররফ করিম হওয়ার চেষ্টা করা যাবে না। কারণ এই পৃথিবীর প্রতিটি মানুষ আলাদা। সবার মধ্যেই কোনো না কোনো গুণ নিশ্চয়ই রয়েছে। সেটা বের করে প্রকাশ করা জরুরি। আর অভিনয় শেখার জন্য আমার মনে হয় মঞ্চ অনেক গুরুত্বপূর্ণ। এখান থেকে যারা অভিনয় করতে এসেছেন, তারা সবাই নিজের অবস্থান তৈরি করে কাজ করেছেন।”

তিনি বলেন, “অবশ্য গ্রুমিং করলেই সে ভালো অভিনয় করবে, এমন কোনো কথা নেই। যদি ৩০ জন শিল্পী গ্রুমিং করেন, কোর্স শেষ করার সময় যদি অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে বলা হয়, ৩০ জনের মধ্যে ২৮ জনই সঠিকভাবে তা জমা দিতে পারবে। তবে সবাই কিন্তু অভিনয়টা করে দেখাতে পারবে না। অভিনয়টা সঠিকভাবে করে দেখাতে পারবে পাঁচজন, আর তারাই অভিনেতা, আমি মনে করি অভিনয়টা রক্তেও থাকতে হয়।”

ভিন্ন চরিত্রে মোশারর করিম
এখন সবাই ব্যস্ত ঈদের কাজ নিয়ে। স্বাভাবিক কারণে ব্যস্ত মোশাররফ করিম। সম্প্রতি তিনি কাজ করেছেন ‘কালচার মামা’ নামের সাত পর্বের একটি নাটকে। এ নাটক প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সত্যিকার অর্থে দেশের সংস্কৃতিকে আরো বিকশিত করার লক্ষ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য নাটকটি নির্মিত হয়েছে।

গল্পটি বেশ চমৎকার। সবারই উচিত আমাদের সংস্কৃতিকে চর্চা করে সমৃদ্ধ করা। আশা করছি এ নাটকটির মাধ্যমে দর্শক বাংলাদেশি সংস্কৃতির নানা বিষয়ে আরো আগ্রহী হবেন।’ সাগর জাহান নির্মাণ করেছেন সাত পর্বের ধারাবাহিক নাটক ‘থ্রি টু ওয়ান জিরো অ্যাকশন’। সেখানে গোঁফওয়ালা অভিনেতার চরিত্রে দেখা যাবে মোশাররফ করিমকে।

চরিত্রের প্রয়োজনে মোশাররফ করিম
নির্মাতা সাগর জাহান ও মোশাররফ করিমের নাটক মানেই দর্শকদের কাছে ভিন্ন কিছু। এই দু’জনের রসায়ন দারুণভাবে উপভোগ করেন দর্শকরা। তাই ‘থ্রি টু ওয়ান জিরো অ্যাকশন’ ছাড়াও ‘তালমিছরি, না হাওয়াই মিঠাই’ শিরোনামের আরো একটি সাত পর্বের ধারাবাহিকে দেখা যাবে তাকে।

এর গল্পে দেখা যাবে, মোশাররফ করিমের এক পা বড়, এক পা ছোট। দীর্ঘদিন পর তিনি দেশে ফেরেন বিয়ে করার জন্য। দেশে এসে তার পরিচয় হয় তিশার সঙ্গে। তাদের দু’জনের সম্পর্ক হয়। সেই সম্পর্ককে মোশাররফ ভাবেন প্রেম। আসলেই কি তাই? সূত্র: সমকাল।

Share